হাফেজা উম্মে বেলাল হোক নারীদের অনুপ্রেরণা

উম্মে বিলাল। ইরাকের এক বৃদ্ধা হাফেজে কুরআন। যিনি নারীদের জন্য এক আদর্শ অনুপ্রেরণা। তিনি নিয়মতি কুরআন লেখার মাধ্যমে তার দিন শুরু করেন। অতঃপর কুরআনিক ইন্সটিটিউটে কুরআন শেখান এবং রাতে হোয়াটস অ্যাপে কুরআনিক ম্যাসেজের মাধ্যমে দিনের কাজ শেষ করেন।

ইরাকের বসরায় বসবাসকারী হাফেজ উম্মে বিলাল-এর অন্যতম গুণ হলো তিনি ইতিমধ্যে জাফরানের রং দিয়ে পবিত্র কুরআনের সাত খণ্ড পাণ্ডুলিপি হাতে লিখে সম্পন্ন করেছেন। এ কার্যক্রমের মাধ্যমে তিনি অন্যদেরকেও কুরআন সংস্কৃতির সঙ্গে সংযুক্ত হতে অনুপ্রেরণা দিয়ে আসছেন।

হাতে কুরআনের পাণ্ডুলিপি লেখার সঙ্গে সঙ্গে তিনি বিভিন্ন ধরণের কুরআনিক কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছেন। কুরআন তেলাওয়াত প্রশিক্ষণ, কুরআন হেফজ প্রশিক্ষণসহ নারীদের মধ্যে কুরআন সংস্কৃতি প্রকাশনার কার্যক্রমও পরিচালনা করেছেন।

তিনি শুধু নিজে হাতে কুরআন লিখেছেন এমন নয় বরং প্রতিবেশি দেশ কুয়েত, সৌদি আরব, সিরিয়াসহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশে ভ্রমণকালে তিনি সে দেশসমূহের নারীদেরকে কুরআন লেখার কাজে সহযোগিতা করেছেন।

হাফেজ উম্মে বিলাল ঘুম থেকে ওঠে প্রতিদিন সকালে কুরআন লেখেন। কুরআন লেখার পর শিক্ষার্থীদেরকে কুরআন হেফজ করানোর জন্য কুরআনিক ইন্সটিটিউটে যান এবং রাতে হোয়াটস অ্যাপে কুরআনের শিক্ষা বিষয়ক ম্যাসেজ করার মাধ্যমে দিনের কাজ সম্পন্ন করেন।

পৃথিবীর প্রতিটি মুসলিম পরিবারের নারী-পুরুষদের প্রতিদিনের কাজ শুরু হোক কুরআনের মাধ্যমে আর শেষ হোক কুরআনের মাধ্যমে। আর এতেই রয়েছে বিশেষ কল্যাণ।

অবসর সময়ে ধর্মীয় শিক্ষায় নিজেদের নিয়োজিত করার পাশাপাশি ব্যক্তি পরিবার ও সমাজে কুরআনের লেখা, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের উদ্যোগ গ্রহণ নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় কাজ। ইরাকের বয়স্ক নারী হাফেজ উম্মে বিলাল হোক সব নারীদের অনুপ্রেরণা।

আপনার মন্তব্য