Thursday, August 22, 2019
আব্দুল মালেক (দা বা) maolana abdul malek\

মঙ্গল শোভা-যাত্রা কি আসলেই মঙ্গলজনক? মাওলানা আব্দুল মালেক

মাওলানা মুহাম্মাদ আব্দুল মালেক হাফিযাহুল্লাহর বয়ান থেকে।
মুফতী আবুল কাসেম নোমানী

খতমে বুখারির প্রথা বিদআতের পর্যায়ে চলে যাচ্ছে : দেওবন্দের মুহতামিম

সোমবার (২৫ মার্চ) চট্টগ্রাম জামেয়া ইসলামিয়া পটিয়া মাদরাসায় খতমে বুখারি মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।
টাকা পয়সা ধন সম্পদ

আখেরাতে তো নয়ই, হারাম উপার্জনকারীরা দুনিয়াতেও শান্তি পায় না – মুফতি শওকত কাসেমি

হারাম সম্পদের দুনিয়াবি প্রতিফল হলো, তারা স্ত্রী অনুগত হবে না। সন্তানরা নেক হবে না। পরিবার ও সন্তানকে হালাল টাকায় লালনপালন করা স্বামী ও পিতার ওপর আমানত ও দায়িত্ব। এ ক্ষেত্রে যে খেয়ানত করবে তার জন্য ওই পরিবার ও সন্তানই আজাবের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। হারামের সম্পদ দ্বারা যা কিছু করা হবে তা-ই বরকত ও কল্যাণশূন্য হবে।

ঈমানের মেহনত : পরিচয় ও পদ্ধতি

মুফতী মনসূরুল হক দা.বা. (বয়ান: ১৫.০৩.২০১৮, স্থান: মুহাম্মাদপুর কবরস্থান মসজিদ)

দাওয়াতের কাজে নারীদের সহযোগিতার ফায়দা

মাওলানা উমির পালনপুরী । ।  আমরা বলি, প্রতিটি ঘরেই তালিমের ব্যবস্থা করতে হবে। যেন নারী এবং শিশুরা দীনি মেজাজে গড়ে ওঠতে পারে। অনেক নারী এমন...

কওমী মাদরাসার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও অবদান- মুফতি আবুল কাসেম নুমানী

বিশ্বের শীর্ষ ইসলামী বিদ্যাপীঠ দারুল উলূম দেওবন্দের সম্মানিত মুহতামিম হযরত মুফতি আবুল কাসেম নুমানী সাহেব দা. বা.এর ঐতিহাসিক বয়ান (স্থান: ফ্রেন্ডস্ ক্লাব মাঠ, সেক্টর-৩, উত্তরা, ঢাকা। ভাষান্তর: শাইখুল হাদীস মুফতী মনসূরুল হক দা. বা.
আল্লামা মুফতী আবুল কাসেম নোমানী

উলামায়ে কেরামের দায়িত্ব ও কর্তব্য – আল্লামা মুফতী আবুল কাসেম নোমানী

বিশ্বের শীর্ষ ইসলামী বিদ্যাপীঠ দারুল উলূম দেওবন্দ মাদরাসার মুহতামিম হযরতুল আল্লাম মুফতী আবুল কাসেম নোমানী সাহেব দা.বা. এর ঐতিহাসিক বয়ান স্থান: মদীনাতুল উলূম মাছনা মাদরাসা, মনিরামপুর, যশোর।
ওলিপুরি

ওয়াজের জন্য যারা চুক্তি করে টাকা নেন তারা আলেম নামের কলঙ্ক : আল্লামা ওলীপুরী

ওয়াজ করার জন্য সেসব আলেম চুক্তি করে টাকা নেন তারা আলেম নামের কলঙ্ক বলে মন্তব্য করেছেন দেশের প্রখ্যাত আলেমে দীন ও বিশিষ্ট বক্তা মাওলানা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী।
বিশ্ব-ইজতেমা- ijtema 2019

মাওলানা ইলিয়াসের (রঃ) রেখে যাওয়া উসুল ও তারতীব অনুসরণ করতে হবে: শায়েখ গাসসান

চলতি বিশ্ব ইজতেমায় সৌদি আরব থেকে আগত বিশিষ্ট আলেম ও দায়ী শায়েখ গাসসান বলেছেন, তাবলীগ জামাতের প্রবর্তক, জগদ্বিখ্যাত দায়ী হযরত মাওলানা ইলিয়াস রাহিমাহুল্লাহুর রেখে যাওয়া উসুল ও তারতীব অনুসরণ করে আমাদেরকে দাওয়াত ও তাবলীগের কাজ করতে হবে।