ইদ্দতচলাকালীন সময়ে বিয়ে কি শুদ্ধ হয়?

প্রশ্ন

আমি রফিক
ঢাকা থেকে
আামার প্রশ্ন : একটা মেয়ের সাথে আমার সম্পর্ক ছিল।  আমরা দুজন দুজনকে অনেক ভালবাসি। একসময় মেয়ের বাবা মেয়ের অনিচ্ছায় অন্যত্র তাকে বিয়ে দেয়। কিম্তু মেয়ে ৩ মাস বাবার বাড়িতে ছিল। তার স্বামির সাথে তার কোন শারিরীক সম্পর্ক হয়নি। সে আমার কাছে চলে আসে। আর এর মধ্যে সেই ছেলে ওকে ডিভর্স দেয়। মেয়ের বাবা তাতে মেয়ের পক্ষে স্বক্ষর করেন।  ৭ই জুলাই ডিভর্স দেয় আার ২৯ জুলাই আামরা বিয়ে করি। এর পরে এক সময় (মোবাইলে)ঝগড়ার মধ্যে ও আমার কাছে তালাক চায় এবং আমি রেগেগিয়ে তিন তালাক বলে ফেলি।
এখনও আমরা একসাথে আছি কারন আামার জানা মতে তখনও ওর ইদ্দত সম্পন্ন হয়নাই।
১। আমাদের বিয়ে হয়েছিল কি না?
২। তালাক হবে কিনা?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রথম স্বামী থেকে তালাকপ্রাপ্তা হবার পর ইদ্দত তথা তিন হায়েজ অতিক্রান্ত হবার আগে অন্যত্র বিয়ে শুদ্ধ নয়।

তাই আপনাদের বিয়ে শুদ্ধ হয়নি। তাই তালাকও পতিত হয়নি।

বিয়ের আগে এভাবে প্রেম করা এবং ঘরসংসার করা পরিস্কার যিনা। তাই আপনাদের উচিত দ্রুত আলাদা হওয়া। আল্লাহর কাছে কায়মানোবাক্যে তওবা ও ইস্তিগফার করা।

ইদ্দত শেষে হলে বিয়ে করতে পারবেন। এর আগে কথাবার্তা বলাও জায়েজ নয়।

وَلَا تَعْزِمُوا عُقْدَةَ النِّكَاحِ حَتَّىٰ يَبْلُغَ الْكِتَابُ أَجَلَهُ ۚ [٢:٢٣٥]

আর নির্ধারিত ইদ্দত সমাপ্তি পর্যায়ে না যাওয়া অবধি বিয়ে করার কোন ইচ্ছা করো না। [সূরা বাকারা-২৩৫]

لا يجوز للرجل أن يتزوج زوجة غيره، وكذالك المعتدة سواء كانت العدة عن طالق، أو وفاة (الفتاوى الهندية، كِتَابُ النِّكَاحِ وَفِيهِ أَحَدَ عَشَرَ بَابًا، الْبَابُ الثَّالِثُ فِي بَيَانِ الْمُحَرَّمَاتِ وَهِيَ تِسْعَةُ أَقْسَامٍ، الْقِسْمُ السَّادِسُ الْمُحَرَّمَاتُ الَّتِي يَتَعَلَّقُ بِهَا حَقُّ الْغَيْرِ-1/280، بدائع الصنائع، كتاب النكاح عدم جواز منكوحة الغير-2/547، زكريا، البحر الرائق، كتاب النكاح، فصل فى المحرمات-3/108)

أَمَّا نِكَاحُ مَنْكُوحَةِ الْغَيْرِ وَمُعْتَدَّتِهِ فَالدُّخُولُ فِيهِ لَا يُوجِبُ الْعِدَّةَ إنْ عُلِمَ أَنَّهَا لِلْغَيْرِ لِأَنَّهُ لَمْ يَقُلْ أَحَدٌ بِجَوَازِهِ فَلَمْ يَنْعَقِدْ أَصْلًا (رد المحتار-4/274، البحر الرائق-4/242

ومنها ان لا تكون معتدة الغير لقوله: ولا تعزموا عقدة النكاح حتى يبلغ الكتاب أجله أى ما كتب عليها من التربص (بدائع الصنائع-2/549)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: