Monday, March 25, 2019

দীনের দায়ী ও খাদেমদের পরস্পর সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত?

দীন ইসলাম সংরক্ষণ ও সম্প্রসারণ, মুসলমানদের অন্তরে ভাল কাজের আগ্রহ-উদ্দীপনা এবং মন্দ কাজ থেকে বেঁচে থাকার মনোভাব সৃষ্টির জন্য যে চেষ্টা প্রচেষ্টা চলছে, চাই...

আপনার সন্তানের প্রতি লক্ষ্য রাখুন : মুফতী মনসূরুল হক দা.বা.

সচেতন পিতা-মাতার পরিচয় হল, সন্তানের সার্বিক বিষয়ের প্রতি লক্ষ্য রাখা। কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে, পিতা-মাতার অসচেতনতা, অদূরদর্শীতা এবং দীন সম্পর্কে অজ্ঞতার দরুন সন্তানদের দুনিয়া-আখেরাত...
পুরুষদের কিছু বর্জনীয় অভ্যাস

পুরুষদের কিছু বর্জনীয় অভ্যাস

লেখক: মুফতী মনসূরুল হক দা.বা.

বিবাহ-শাদীর প্রচলিত ভুলসমূহ

মুফতী মনসূরুল হক বিবাহ-শাদী মানব জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। যা মহান আল্লাহ তা‘আলা তাঁর বান্দাদেরকে বিশেষ নে‘আমত হিসাবে দান করেছেন। বাহ্যিক দৃষ্টিতে বিবাহ-শাদী দুনিয়াবী কাজ...

মুসাফাহা এক হাতে করবো, নাকি দুই হাতে?

 মুফতী মনসূরুল হক দুইজন মুসলমান যখন পরস্পর সাক্ষাৎ করে, তখন তারা একে অপরকে সালাম দেয়, সালামের পর মুসাফাহা করে। এটা যেমনিভাবে মুসলমানদের পরস্পর মুহাব্বত-ভালোবাসার নিদর্শন,...

মহিলাদের কিছু বর্জনীয় অভ্যাস: মুফতী মনসূরুল হক (দা.বা.)

১. জরুরী আকায়িদ, ইবাদত, সহীহ কুরআন তিলাওয়াত, পিতা-মাতা, স্বামীর হক ও সন্তানের হক সম্পর্কে ইলম হাসিল করে না অথচ জরুরত পরিমাণ ইলম অর্জন করা...
দু‘আ কবুল হওয়ার কিছু শর্তঃ দু‘আর আদব সমূহঃ

দু‘আ ও মুনাজাত : কিছু শর্ত ও আদব

শাইখুল হাদীস মুফতী মনসূরুল হক দা.বা. এতে আছে- দু‘আ কবুল হওয়ার কিছু শর্তঃ দু‘আর আদব সমূহঃ দু‘আ কবুল হওয়ার বিশেষ কিছু সময়
Muhammad nobiji নবী রাসুল মুহাম্মাদ

খতমে নবুওয়ত সম্পর্কে আক্বীদা বা বিশ্বাস

লিখেছেন - শাইখুল হাদীস মুফতি মনসূরুল হক দা.বা.
তাবিজ কবজ ঝাড়ফুঁক জাদু টোনা পানি পড়া জিনের আসর ওঝা

তাবীজ-কবজ ও ঝাড়-ফুঁক সম্বন্ধে আক্বিদা বা বিশ্বাস

বর্তমান যুগে তাবীজ-কবজ ও ঝাড়-ফুঁক ব্যাপারে মানুষের মাঝে বাড়াবাড়ি ও ছাড়াছাড়ি পরিলক্ষিত হচ্ছে। কেউ কেউ তো ঝাড়-ফুঁক, তাবীয-কবজকে একেবারে অস্বীকার করে এবং এ সকল কাজকে না-জায়িয, হারাম এমনকি শিরক ও মনে করে।
কাফেরদের অনুসরণ আল্লাহ্‌র গজব নাযিল হবার কারণ

মুসলমান কর্তৃক কাফেরদের অনুসরণ আল্লাহর গযব নাযিল হবার প্রধান কারণ

আমরা কোন্ কোন্ দিক দিয়ে ইয়াহুদী-নাসারাদের অনুসরণ করছি তার একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা নীচে পেশ করা হলো, যেন আমরা তা থেকে বিরত থাকতে পারি। আল্লাহ আমাদেরকে রাসূল ﷺ এর সুন্নাত অনুসরণ করা এবং বিধর্মীদের অনুসরণ বর্জন করার তাউফিক দান করেন আমীন।