বিশ্ব ইজতেমা একটাই হবে, নিষিদ্ধ মাওলানা সাদ

টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধের অবসান হয়েছে। আগামী মাসে একটি ইজতেমা করতে একমত হয়েছে তাবলীগের দুই পক্ষ। আর এতে যোগ দেবেন না দিল্লির নেজামুদ্দিনের মাওলানা সাদ কান্ধলভী।

বুধবার সচিবালয়ে তাবলীগের দুই পক্ষকে নিয়ে বৈঠকের পর এই কথা নিশ্চিত করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

শেখ আব্দুল্লাহ বলেন, ‘আজকের সভার পর ইজতেমা একটাই হবে। কোনো বিভক্তি হবে না। তাবলীগ জামাতের দুই গ্রুপের সাথে এটা বৈঠকের সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যাকে নিয়ে বিরোধ তৈরি হয়েছিল, ভারতের মাওলানা সাদ কান্দালভী, তিনি এবারের ইজতেমায় আসছেন না।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহর সাথে বৈঠকের ইজতেমার সময়সূচী সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এছাড়া মাওলানা সাদ কান্ধলভীর বিষয়ে প্রতিনিধি দলের দেওবন্দ সফর হচ্ছে না বলে জানানো হয়েছে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বিষয়টি এতটাই বিতর্কিত হয়ে গেছে যে আমরা কিছু না বললে এটা পরিস্কার হচ্ছেনা। হাইকোর্টে রিট পিটিশন পর্যন্ত গেছে। সেখানে কথাবার্তা ভালো আসেনি”।

বৈঠকে সরকারের পক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ, স্বরাষ্ট্র সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ, ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের প্রধান বেনজির আহমেদ, আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী উপস্থিত ছিলেন।

উলামায়ে কেরামের ও তাবলিগের সাথীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আল্লামা আশরাফ আলী, আল্লামা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসউদ, হাফেজ মাওলানা জুবায়ের আহমদ, মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদ, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা রবিউল হক, মাওলানা আনাস মাদানী, মুফতি জসিম উদ্দিন, খান শাহাবুদ্দিন নাসিম, সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, মাওলানা নূরুল আমিন প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য