মহিলাদের ইতেকাফ আছে? হায়েজ অবস্থায় ইতেকাফ করা যাবে?

মহিলা-নামাজ-মুসলিম-মহিলা-নামাজ-রত-মহিলা

সুওয়াল 

মহিলাদের সুন্নত ইতিকাফ আছে কী?

 

জাওয়াব

রমজানের (শেষ দশকের ইতিকাফ) পুরুষের জন্য সুন্নতে মুয়াক্কাদা আলাল কিফায়া, তবে নারীদের জন্য তা মুস্তাহাব।

-হজরত আয়েশা (রা:) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, হজরত নবী করিম (সা:) তার ওফাত পর্যন্ত রমজানের শেষ দশকের ইতিকাফ করতেন। তার ওফাতের পর তার স্ত্রীগণ ইতিকাফ করেছেন। (সহিহ বুখারি: ২০২৬ ও সহিহ মুসলিম: ১১৭২)

বি:দ্র:বিবাহিত নারীকে রমজানের শেষ দশকের ইতিকাফ বা অন্য সময়ের নফল ইতিকাফের জন্য স্বামীর অনুমতি নিতে হবে। স্বামীর অনুমতি ছাড়া ইতিকাফ করা অনুচিত। স্বামীদের উচিত, যুক্তিসঙ্গত ও গ্রহণযোগ্য কারণ ছাড়া স্ত্রীদের ইতিকাফে বাধা না দেওয়া। তাদের ইতিকাফের সুযোগ দেওয়া। এতে কিন্তু উভয়ই সওয়াব পাবেন। (শামী: ৩/৪২৯, আলমগীরি: ১/২১১)

স্বামী স্ত্রীকে ইতিকাফের অনুমতি দেওয়ার পর আর বাধা দিতে পারবেন না। বাধা দিলেও সে বাধা মানা স্ত্রীর জন্য জরুরি নয়। (শামী: ৩/৪২৮, আলমগীরি: ১/২১১)

ইতিকাফ অবস্থায় (রাতেও) স্বামী-স্ত্রী মেলামেশা করা যাবে না। করলে ইতিকাফ ফাসিদ হয়ে যাবে। (সূরা বাকারা: ১৮৭, বাদায়ে: ২/২৮৫, শামী: ৩/৪৪২)…


সুওয়াল 

হায়েজ অবস্থায় ইতিকাফ করা যায় কিনা?

 

জাওয়াব

মহিলাদের ইতিকাফের জন্য হায়েজ-নেফাস থেকে পবিত্র হওয়া শর্ত। হায়েজ, নেফাস অবস্থায় ইতিকাফ সহীহ হবে না। (বাদায়ে: ২/২৭৪, আলমগীরি: ১/২১১)

বি:দ্র: মহিলাদের ইতিকাফে বসার আগেই হায়েজ-নেফাসের দিন-তারিখ হিসাব করে বসা উচিত। যাতে ইতিকাফ শুরু করার পর পিরিয়ড শুরু না হয়ে যায়। তবে কারও রমজানের শেষ দশকে হায়েজ হওয়ার নিয়ম থাকলে তিনি পিরিয়ড শুরু হওয়া পর্যন্ত নফল ইতিকাফ করতে পারেন।

ওষুধ-বড়ি খেয়ে হায়েজ-নেফাস বন্ধ রেখে রোজা রেখে ইতিকাফ করলে রোজা ও ইতিকাফ উভয়টি সহীহ হবে।

ইতিকাফ শুরু করার পর হায়েজ-নেফাস শুরু হয়ে গেলে ইতিকাফ ভঙ্গ হয়ে যাবে। পরে শুধু একদিনের ইতিকাফ রোজাসহ কাজা করতে হবে। (আহসানুল ফাতাওয়া: ৪/৫০২)

والله اعلم بالصواب.

জ্ঞাতব্য, প্রশ্নোত্তরের সাথে সংশ্লিষ্ট জরুরী কিছু মাসআলা- মাসায়েল উল্লেখ করা হয়েছে।

উত্তর প্রদানে-
মোঃ ইউসুফ হোসাইন
মারকাযে আহলে সুন্নাত
ওয়াল জামাত, বাংলাদেশ।

আপনার মন্তব্য