(পর্ব-১২) সাহাবায়ে কিরাম (রা.)-এর উপর মিথ্যারোপ

মুফতী আবুল হাসান শামসাবাদী


সাহাবায়ে কিরাম (রা.)-এর উপর মিথ্যারোপ করে ডাক্তার জাকির নায়েকের মতবাদ হলো–

ডাক্তার জাকির নায়েক বলেন–

“ রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর ইন্তিকালের পর লোকেরা যখন তাঁর কথাগুলো উদ্ধৃতি দিতে শুরু করলো, কেউ কেউ এমন কথাও বলতে শুরু করলো যা নবীজী (সা.) হয়তো বলেননি।”

ডাক্তার জাকির নায়েক এ কথা তার “Unity of the Muslim Ummah” শীর্ষক লেকচারে বলেছেন। ইন্টারনেটের ইউটিউব থেকে তার উক্ত বক্তব্য শুনতে নিম্নোক্ত লিঙ্কে লগইন করুন (উল্লেখ্য, এ ভিডিওটির ৩৭ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড থেকে তার সেই বক্তব্য রয়েছে) —


আর তার উক্ত বক্তব্য বাংলা ভার্সনে শুনতে চাইলে ইউটিউবের নিম্নবর্ণিত লিঙ্কে লগইন করুন (উল্লেখ্য, এ ভিডিওটির ৩৭ মিনিট ১১ সেকেন্ড থেকে তার সেই বক্তব্য পাবেন) —

এ ছাড়াও তার উক্ত বক্তব্যের প্রিন্টকপি তার লেকচার সমগ্রের ভলিয়ামে রয়েছে। রেফারেন্স দ্রষ্টব্য : ডা. জাকির নায়েক লেকচার সমগ্র, ভলিয়াম নং ৫, পৃষ্ঠা নং ৭৬ ॥ প্রকাশনায় : পিস পাবলিকেশন, ৩৮/৩, বাংলা বাজার–ঢাকা।

###### পর্যালোচনা ######

এটা সাহাবায়ে কিরাম (রা.)-এর প্রতি মিথ্যা অপবাদ। সাহাবীগণ (রা.) কখনো রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর নামে মিথ্যা হাদীস বর্ণনা করেননি। বরং তাঁরা দ্বীনের জন্য নিবেদিতপ্রাণ মহান আল্লাহর মনোনীত জামা‘আত। তাঁরা দ্বীনকে যথাযথভাবে পালন করেছেন এবং উম্মতের নিকট পৌঁছিয়েছেন। তাইতো মহান আল্লাহ তাঁদের প্রতি সন্তুষ্টির ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের সম্পর্কে ডাক্তার জাকির জাকির নায়েকের উক্ত উক্তি সম্পূর্ণই মিথ্যাচারের শামিল।

(প্রমাণ : সূরাহ বাক্বারা, আয়াত নং ১৩৭/ জামি‘ তিরমিযী, হাদীস নং ৩৪৬১/ সুনানে বাইহাক্বী, হাদীস নং ১৫১১)

3 thoughts on “(পর্ব-১২) সাহাবায়ে কিরাম (রা.)-এর উপর মিথ্যারোপ

  1. এখানে সাহাবায়ে কেরামের নাম কোথায় পেলেন? হয়ত ঘুরিয়ে পেঁচিয়ে বলবেন যে, নবী সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর পর তো ‘লোকেরা’ বলতে সাহাবিরাই ছিল। প্রশ্ন আসবে যাকির নায়েক কি ইন্তেকাল এর পরদিন থেকেই বুঝিয়েছেন নাকি পরবর্তী সময়কালে বুঝিয়েছেন? খোদ সাহাবায়ে কেরাম জীবিত থাকতেই যে হাদিস জালিয়াতি আরম্ভ হয়, সেটা তো নিশ্চয় আপনারও জানা আছে।

    শুধু সমালোচনার জন্যই সমালোচনা কেন? যাকির নায়েক দেওবন্দি নন বলে? আল্লাহর ওয়াস্তে ইনসাফ করুন। যাকির নায়েক যা ভুল করেছে, আল্লাহ তার বিচার করবেন৷ তেমনি তার উপর সমালোচনার নামে যে জুলুম আপনারা করছেন, তার বিচারও তিনি করবেন। আল্লাহ আপনাদের মাসলাকের জন্য খাস নন, আল্লাহ তার সব বান্দাদের! কাজেই আল্লাহকে ভয় করুন। মিথ্যাচার বন্ধ করুন। দূরবর্তী কথাকে টেনে এনে জোর করে একজন মুসলিম এর উপর অপবাদ আরোপের ব্যাপারে আল্লাহকে ভয় করুন। আমি যাকির নায়েকের অন্ধ ভক্ত নই। তার ভুল-বিচ্যুতি আছে এটা আমি জানি ও সংশোধন করা উচিত বলে মনে করি।

    আচ্ছা আরেকটা কথা- একটু হিম্মত করে বলতে পারবেন- “যদি যাকির নায়েক উপরে উল্লিখিত বক্তব্যে সাহাবায়ে কিরাম (রা.)-এর উপর মিথ্যারোপ না করে থাকেন, আমার বিবি ৩ তালাক ”

    একটু বলে দেখান তো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: