প্রিয়নবী (সা.) এর পাঁচ নাম

মুসলিম শরীফে বর্ণিত হাদীসে এসেছে, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, “আমার অনেক নাম: আমি মুহাম্মদ, আমি আহমদ, আমি আল-মাহী যার মাধ্যমে আল্লাহ অবিশ্বাসকে নিশ্চিহ্ন করবেন, আমি হাশির যার কাছে কিয়ামতের দিন মানুষ সমবেত হবে এবং আমি আকিব (যার পরে কেউ নেই অর্থাৎ সর্বশেষ নবী) এবং আল্লাহ নিজের নামকরণ করেন রহমান এবং রহীম।” (সহীহ মুসলিম)

প্রিয় নবী (সা.) এর এই পাঁচটি নাম সম্পর্কে নিম্নে সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দেয়া হল-

১. মুহাম্মদ (প্রশংসিত)

রাসূল (সা.) ছিলেন তার নামের মতই সকলের কাছে প্রশংসিত। শুধুই মানুষই নয়, বরং তিনি আল্লাহ এবং ফেরেশতাদের দ্বারাও প্রশংসিত। তার উত্তম চরিত্র ও গুনাবলীর কারণে তিনি এই প্রশংসা অর্জন করেন। কুরআনে রাসূল (সা.) এর প্রশংসায় দরুদ পাঠের জন্য আল্লাহ মুমিনদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন।

২. আহমদ (প্রশংসাকারী)

রাসূল (সা.) এর অধিক পরিমাণে আল্লাহর শুকরিয়া আদায় ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশের দিকে তার এই নামটি নির্দেশ করে। তিনি সর্বদাই আল্লাহর প্রশংসা ও তাসবীহ পাঠে নিজেকে নিয়োজিত রাখতেন।

৩. আল-মাহী (মোচনকারী)

এই নাম দ্বারা রাসূল (সা.) এর ঐ ভূমিকাকে নির্দেশ করা হয়েছে, যার মাধ্যমে আল্লাহ অজ্ঞানতা ও অবিশ্বাসকে দূর করেছেন এবং করবেন।

৪. আল-হাশির (সমবেতকারী)

এর মাধ্যমে কিয়ামতের দিন রাসূল (সা.) এর মর্যাদা ও অবস্থানকে নির্দেশ করা হয়েছে। কিয়ামতের দিন শাফায়াতের জন্য সকল মানুষ তার কাছে এসে সমবেত হবে।

৫. আল-আকীব (সর্বশেষ)

এই নামটি মূলত রাসূল (সা.) এর আগমনকে নির্দেশ করে। সকল নবী রাসূলের আগমনের পর তিনি সর্বশেষ নবী হিসেবে পৃথিবীতে আগমন করেন।

প্রিয় নবী (সা.) এর উপর আল্লাহ অফুরান শান্তি ও রহমত বর্ষণ করুন এবং তাঁর মর্যাদাকে আরও বৃদ্ধি করুন। আমীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: