বাথরুমের পানির ছিটা শরীর বা কাপড়ে লাগলে কি নাপাক হবে?

বাসা, অফিস বা কর্মস্থলে থাকাকালীন নামাযের সময় হলে আমরা সাধারণত বাথরুমেই অযু করি, হাত মুখ ধুই, প্রাকৃতিক প্রয়োজন থেকে পবিত্রতা অর্জন করি। এসময়, পানির ছিটা স্বাভাবিকভাবে কাপড়ে লেগেই যায়। অনেকেরই প্রশ্নটি জাগে যে, এমতাবস্থায় ঐ কাপড় পড়ে নামায বা অন্য কোন ইবাদত করা যাবে কি?

উত্তরঃ বাথরুমের ফ্লোর যদি নাপাক থাকে তবে ফ্লোর থেকে ছিটে আসা পানি শরীর বা কাপড়ে লাগলে তা নাপাক হয়ে যাবে। আর ফ্লোর পাক থাকলে কোন সমস্যা নেই।

উল্লেখ্য যে, সাধারণত উযূ, গোসল বা পাক কাপর চোপড় ধৌত করার দ্বারা ফ্লোর নাপাক হয় না। তবে অপবিত্র কিছু ধৌত করলে ফ্লোর নাপাক হয়ে যায়। এরপর নাপাকীর কোন আছর না থাকলে, ফ্লোর শুকিয়ে গেলে অথবা কিছু পানি প্রবাহিত করে দিলে এবং (ফ্লোর একদিকে ঢালু হওয়ায়) তা গড়িয়ে নালা দিয়ে পড়ে গেলেও ফ্লোর পাক হয়ে যাবে।

অনুরূপভাবে প্রাকৃতিক প্রয়োজন শেষে পানি ব্যবহারের সময় নাপাকী মিশ্রিত পানি শরীর বা কাপড়ে লাগলে তা নাপাক হয়ে যাবে। তবে নাপাকী ধোয়া হয়ে যাবার পর পানি ছিটে এলে সমস্যা নেই। এসময় নাপাকী মিশ্রিত পানির ছিটা থেকে খুব সহজেই বাঁচা যায়। প্রথমেই উত্তমরূপে টিস্যু ব্যবহার করে এরপর নাপাকী থাকা অবস্থায় একটু সতর্কতার সাথে পানি ব্যবহার করলেই কোন সমস্যা হয় না। আর পানির ছিটা লাগলেও পায়ের নিচের দিকে লাগে। যা পরে ধৌত করে নিলে হয়ে যাবে।

আর হাই কমোড হলে সতর্ক থাকতে হবে যেন নিচ থেকে নাপাক পানির ছিটা না আসে। ছিটা আসলে সতর্কভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে। স্প্রেয়ার দিয়ে পানি ব্যবহারের সময়ও খেয়াল রাখতে হবে যেন স্পীডের তীব্রতার কারণে পানি কোনভাবে নাপাকিসহ পেছন দিক থেকে পিঠের দিকে উঠে না আসে। নাপাকি ধোয়া হয়ে যাওয়ার পর পানি ছিটে এলে সমস্যা নেই।

মাসআলা সুত্রঃ সহীহুল বুখারী, হাদীস নং ১৭৪; হালবিয়ে কাবীর, পৃষ্ঠা ১৫২

আপনার মন্তব্য