স্বামী ও স্ত্রীর তালাকের মিথ্যা স্বীকারোক্তি দ্বারা কি তালাক হয়?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম plzzz আমার মেইল এর উত্তর দিন অনেক মেইল করি কিন্তু উত্তর পাই না।

আমি শুনেছি যে কোনো ছেলে যদি মিথ্যা করেও বলে যে আমি আমার স্ত্রী কে তালাক দিয়েছি তাহলে তাঁর স্ত্রীর ওপর তালাক পতিত হয়ে যায়।

এরকম যদি কোনো মহিলা মিথ্যা করে বলে যে তাঁর স্বামী তাকে তালাক দিয়েছে তাহলে কি সেই স্ত্রীর ওপর তালাক পতিত হয়ে যায় ? ( যদিও স্বামী দেয়নি কিন্তু স্ত্রী যদি মিথ্যা করে বলে )।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

স্বামী ‘তালাক দিয়েছি’ বলে নতুন তালাক নয়, বরং আগের তালাকের মিথ্যা স্বীকারোক্তি করে, তাহলে এর দ্বারা কোন তালাক পতিত হয় না।

তবে যদি আগের তালাকের স্বীকারোক্তি হিসেবে নয়, বরং মিথ্যা বলার নিয়তে ‘তালাক দিয়েছি’ বলে তালাক পতিত হয়ে যাবে।

স্ত্রীর মিথ্যা স্বীকারোক্তি দ্বারা কোন তালাক হয় না।

ولو اقر بالطلاق هازلا أو كاذبا، وقع قضاء…… لو أراد به الخبر عن الماضى كذبا لا يقع ديانة، وإن أشهد قبل ذلك لا يقع قضاء (رد المحتار، كتاب الطلاق، زكريا-4/443، كرتاشى-3/238، بزازية على همش الهندية-4/178، جديد-1/116)

ولو اقر بالطلاق وهو كاذب وقع فى القضاء، وصرح فى البزازية: بأن له فى الديانة إمسكها إذا قال: أردت به الخبر عن الماضى كذبا، وإن لم يرد به الخبر عن الماضى أو أراد به الكذب، أو الهزل وقع قضاء وديانة (البحر الرائق، زكريا-3/428)

إذا قال لها: قد طلقتك، أو قال لها: أنت طلاق” وأراد الخبر عما مضى كذبا وسعه فيما بينه وبين الله تعالى أن يمسكها، وإن لم يرد الخبر عما مضى وأراد الكذب فهى طالق فى القضاء وفيما بينه وبين ربه، وكذا إذا اراد الهزل طلقت قضاء وديانة (تاتارخانية-4/401، رقم-6525)

انم الطلاق لمن أخذ بالساق (سنن ابن ماجه-151، رقم-2081)

ان الذى يملك الطلاق إنما هو الزوج (الفقه الإسلامى وادلته-7/355)

وأهله زوج عاقل بالغ مستيقظ (رد المحتار، زكريا-4/431، كرتاشى-3/230)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: